শিরোনাম
শিবালয়ে নিষিদ্ধ সময়ে যমুনার চরে দিনব্যাপী ইলিশের হাট দৌলতদিয়ার যৌনপল্লিতে যৌনকর্মীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার- গোয়ালন্দে কৃষকদের বাধা উপেক্ষা করে প্রভাবশালী মহল মরাপদ্মায় ড্রেজার দিয়ে অবাধে মাটি উত্তোলন করছে দৌলতদিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক বহিস্কার গোয়ালন্দে ছাত্রলীগ নেতাকে মারধরের অভিযোগে উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আটক- গোয়ালন্দে ৭০০ গ্রাম গাঁজাসহ দুই জন আটক গোয়ালন্দ প্রবাসী ফোরামের উদ্যোগে অসচ্ছল মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান রাজবাড়ীতে শেখ হাসিনার নির্দেশে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে সম্মানি বিতরণ অবৈধ ড্রেজার ব্যবসায়ীকে জরিমানা, ৭টি ড্রেজার জব্দ গোয়ালন্দে অসহায় মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ এমপি কন্যা চৈতীর উদ্যোগে

দৌলতদিয়ার যৌনপল্লিতে যৌনকর্মীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার-

রনি মন্ডল | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ৭৭ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ৯ অক্টোবর, ২০২১

0Shares

ষ্টাফ রিপোর্টার

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লী রিতু বেগম (৩০) নামের এক যৌনকর্মীর রক্তাক্ত অবস্থায় লাশ উদ্ধার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ।

শনিবার (০৯অক্টোবর) সকালে উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর ভেতরের সাংবাদিক সুজন খন্দকারের বাড়ির একটি কক্ষ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত রিতু বেগম যৌনপল্লীর বাড়িওয়ালা সাংবাদিক সুজন খন্দকারের কথিত স্ত্রী। পুলিশ ও স্থানীয়দের ধারণা, আজ ভোররাতের দিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে যৌনকর্মী মিতু আক্তারকে এলোপাথারিভাবে কোপায়। পরে গলা কেটে হত্যা নিশ্চিত করা হয়। হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত কোনো কারণ এখনো জানা যায়নি।

নিহত ঋতু আক্তারের মেয়ে  জানান, সাংবাদিক সুজন খন্দকারের বাড়িওয়ালি হিসেবে তার মা ওই বাড়িতে থাকত। গত রাতে সে অন্য একটি বাড়িতে ঘুমিয়ে ছিল। সকল ৮টার দিকে তাকে স্থানীয়রা ডেকে বলে তার মা’কে হত্যা করা হয়েছে। তার মায়ের সাথে কারও কোনো শত্রুতা ছিল না বলে তিনি জানান। স্থানীয় একাধিক যৌনকর্মী জানায়, ঘটনার রাতেও ঋতুর ঘরে বাড়িওয়ালা সুজন খন্দকার এসেছিল।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর বলেন , শনিবার সকালে ঋতু আক্তারের শয়নকক্ষ থেকে রক্ত গড়িয়ে বাইরে চলে আসলে স্থানীয়রা তার ঘরে গিয়ে তার গলাকাটা মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে। পরে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থয়ে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। ‘ঘটনা তদন্তে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করে হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা করা হচ্ছে।’

হত্যাকান্ডের প্রকৃত কারণ উদঘাটনের জন্য পুলিশের একাধিক দল (পি.বি.আই, সি.আই.ডি, ফরেসসিক বিভাগ) ঘটনাস্থলে কাজ করছে। বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ীর মর্গে পাঠানো হবে বলে তিনি জানান।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg