শিরোনাম
দৌলতদিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক বহিস্কার গোয়ালন্দে ছাত্রলীগ নেতাকে মারধরের অভিযোগে উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আটক- গোয়ালন্দে ৭০০ গ্রাম গাঁজাসহ দুই জন আটক গোয়ালন্দ প্রবাসী ফোরামের উদ্যোগে অসচ্ছল মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান রাজবাড়ীতে শেখ হাসিনার নির্দেশে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে সম্মানি বিতরণ অবৈধ ড্রেজার ব্যবসায়ীকে জরিমানা, ৭টি ড্রেজার জব্দ গোয়ালন্দে অসহায় মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ এমপি কন্যা চৈতীর উদ্যোগে জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মাধ্যমে শেষ হলো রাজবাড়ী সার্কেল আয়োজিত ইসলামিক কুইজ প্রতিযোগিতা ২০২১ করোনা ভাইরাস থেকে পরিত্রাণের জন্য রাজবাড়ী সার্কেলের বিশেষ দোয়া মাহফিল গোয়ালন্দে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার নতুন পোশাক পেল সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা

পাংশায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এখন হাঁসের খামারে পরিণত

রনি মন্ডল | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ১১৭ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : শুক্রবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২১

0Shares

স্টাফ রিপোর্টারঃ

রাজবাড়ীর পাংশায় পানি বন্দি ডাঃ আঃ কাদের বালিকা দাখিল মাদরাসা। রোগ জীবানু ছড়ানোর আশঙ্কা। দুশ্চিন্তা ও দুর্ভোগ চরমে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা।

পাংশা পৌর শহরের ৫নং ওয়ার্ডের কুরাপাড়া গ্রামে অবস্থিত প্রতিষ্ঠানটি। বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে প্রতিষ্ঠানের মাঠ ও প্রবেশ পথ। হাঁটু সমান পানি পার করে যেতে হচ্ছে প্রতিষ্ঠানে। একটি ভবনেও প্রবেশ করেছে পানি। ইতি মধ্যে প্রতিষ্ঠানের অফিস কক্ষ সহ পাঁচটি শ্রেণী কক্ষে প্রবেশ করেছে পানি। আর কিছুক্ষণ বৃষ্টি হলে বাকি ভবনটিতেও পানি প্রবেশ করবে। এ নিয়ে দুর্ভোগ এবং ব্যাপক দুশ্চিন্তায় শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

প্রতিষ্ঠানের পাশ দিয়ে যেতেই চোখে পরে শিক্ষার্থীদের যাতায়াত। কেউ অ্যাসাইনমেন্টের খাতা নিতে, কেউ খাতা জমা দিতে। হাঁটু সমান পানি পার করেই যাতায়াত করছে শিক্ষার্থীরা। এতে চরম দুর্ভোগ ও ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে তাদের। প্রতিষ্ঠানের ভিতরে প্রবেশ করে দেখা যায়, মাঠ জুড়ে জন্মেছে ঘাঁস। মাঠে জমা পনির মধ্য খেলা করছে হাঁস।

এ সময় প্রতিষ্ঠানের প্রধান মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস বলেন, প্রতিষ্ঠানটি উঁচু জায়গা হওয়া সত্বেও জমে রয়েছে পানি। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। পানি নিষ্কাশনের জন্য একটি কালভার্ট রয়েছে। সেটা ব্যক্তিগত জায়গার উপর দিয়ে হওয়ার কারণে বন্ধ করে দিয়েছে মালিকপক্ষ। একারণেই পানি জমাট বেঁধে রয়েছে। সরকারি জায়গার উপর দিয়ে যদি কোন কালভার্ট থাকতো। তাহলে আমাদের এই দুর্ভোগ ও ভোগান্তিতে পড়তে হতো না। ইতি মধ্যে আমাদের পাঁচটি শ্রেণী কক্ষ ও অফিস কক্ষে পনি প্রবেশ করেছে। এখন আমরা পনির মধ্যেই অফিস করছি। শুধু দুর্ভোগ আর ভোগান্তিই নয় রোগ জীবানু ছড়ানোর আশঙ্কাও রয়েছে। আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত দিয়েছে সরকার। এই পানি নিষ্কাশন করা অতীব জরুরী বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তাজুল ইসলাম (তাজ)’এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, প্রতিষ্ঠানটিতে জলবদ্ধতার বিষয়টি আমি অবগত আছি। যেহেতু এটি একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। যত দ্রুত সম্ভব অবশ্যই পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করব।

পাংশা পৌর মেয়র ওয়াজেদ আলী মন্ডল বলেন, মালিকানা জায়গা ছাড়া পানি বের করার কোনো রাস্তা নেই। সরকারি জায়গা দিয়ে পানি বের করতে হলে। পাকা সড়ক কেটে কালভাট বসিয়ে বের করতে হবে। তবে আমি এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে যত দ্রুত সম্ভব ব্যবস্থা করব।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg