শিরোনাম
গোয়ালন্দ প্রবাসী ফোরামের উদ্যোগে অসচ্ছল মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান রাজবাড়ীতে শেখ হাসিনার নির্দেশে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে সম্মানি বিতরণ অবৈধ ড্রেজার ব্যবসায়ীকে জরিমানা, ৭টি ড্রেজার জব্দ গোয়ালন্দে অসহায় মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ এমপি কন্যা চৈতীর উদ্যোগে জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মাধ্যমে শেষ হলো রাজবাড়ী সার্কেল আয়োজিত ইসলামিক কুইজ প্রতিযোগিতা ২০২১ করোনা ভাইরাস থেকে পরিত্রাণের জন্য রাজবাড়ী সার্কেলের বিশেষ দোয়া মাহফিল গোয়ালন্দে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার নতুন পোশাক পেল সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা দৌলতদিয়ায় হেরোইনসহ ৩ জন আটক রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ভ্রাম্যমান আদালতে ব্যবসায়ীসহ ৫জনকে অর্থ জরিমানা পশ্চিম আকাশে চাঁদ দেখা গিয়াছে, আগামীকাল থেকে রোজা শুরু 

ভাড়া দ্বিগুণ, যাত্রী তিনগুণ

রনি মন্ডল | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ৫৩ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : শুক্রবার, ১৬ জুলাই, ২০২১

0Shares

.স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার শর্তে সারা দেশে গণপরিবহন চালানোর অনুমতি দিয়েছে সরকার। ঈদকে সামনে রেখে আগের মতো ৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়ায় ৯ দিনের জন্য এই অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু সরকারের শর্ত মানছে না গণপরিবহনগুলো। অর্ধেক আসন ফাঁকা রাখার কথা থাকলেও সব আসনে যাত্রী তোলা হচ্ছে। দাঁড়িয়েও যাচ্ছেন যাত্রীরা। যাত্রীদের অভিযোগ দ্বিগুণ ভাড়া নেওয়া হলেও যাত্রী পরিবহন করা হচ্ছে তিনগুণ। সকাল থেকে নগরীর প্রায় প্রতিটি এলাকায় এমন চিত্র দেখা গেছে।

সকালে কমলাপুর রেল স্টেশনের সামনের সড়কে দেখা গেছে, গাজীপুর-সায়েদাবাদ রুটের বলাকা পরিবহনের একটি গাড়ির প্রতিটি আসনেই যাত্রী। দাঁড়িয়েও আছেন কেউ কেউ। ছবি তুলতে গেলে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে বাসটি।

বাসটি থেকে কমলাপুর স্টেশনের সামনে নামেন যাত্রী শারাফাত হোসেন। জানতে চাইলে তিনি ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আজ ওই বাসের সংখ্যা কম। কয়েক দিন লকডাউন থাকায় অনেকেই বাসা থেকে বের হয়নি আজ। আজ অনেকে জরুরি কাজ সারতে একযোগে বেরিয়েছে। যাত্রী যত বেশি বাস তত কম। বাধ্য হয়ে অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে বাসে উঠেছি।’
তিনি আরও বলেন, ‘ভাড়া কিন্তু কম নেয়নি। সবার কাছ থেকেই দ্বিগুণ আদায় করা হয়েছে।’
রায়েরবাগ থেকে ঠিকানা পরিবহনে উঠেছেন বেলায়েত বিন শফি। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, তার সঙ্গে দাঁড়িয়েও ছিলেন অনেক যাত্রী। কোথাও পুলিশ ব্যবস্থা নেয়নি। ভাড়া কেন বেশি নেওয়া হচ্ছে জানতে চাইলে হেলপার বলে, ভাড়া না দিলে নেমে যান। প্রতিবাদ করার উল্টো গালাগাল শুনেছেন তিনি।

যাত্রাবাড়ী এলাকাতেও দেখা গেছে রজনীগন্ধা, মালঞ্চ পরিবহন ও বিআরটিসির বিভিন্ন পরিবহনে অতিরিক্ত যাত্রী নেওয়া হচ্ছে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বাসে আগে ওঠা যাত্রীরা।

সকাল থেকে নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এমন আরও চিত্র দেখা গেছে। কোথাও ট্রাফিক পুলিশ বা সার্জেন্টকে বাধা দিতে বা মামলা করতে দেখা যায়নি।

জানতে চাইলে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমরা মালিক-শ্রমিকদের বলেছি যাতে তারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেন। যারা মানবে না তাদের বিরুদ্ধে যেন পুলিশ ব্যবস্থা নেয় সে জন্য প্রশাসনের কাছে আহ্বান জানিয়েছি। এখন কোন বাস কোন এলাকায় অতিরিক্ত যাত্রী নিচ্ছে সেটা তো দেখতে পারছি না। অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে যাতে বাসে না ওঠেন সেজন্য যাত্রীদেরও অনুরোধ করছি আমরা।’
সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg