শিরোনাম
গোয়ালন্দে কৃষকদের বাধা উপেক্ষা করে প্রভাবশালী মহল মরাপদ্মায় ড্রেজার দিয়ে অবাধে মাটি উত্তোলন করছে দৌলতদিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক বহিস্কার গোয়ালন্দে ছাত্রলীগ নেতাকে মারধরের অভিযোগে উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আটক- গোয়ালন্দে ৭০০ গ্রাম গাঁজাসহ দুই জন আটক গোয়ালন্দ প্রবাসী ফোরামের উদ্যোগে অসচ্ছল মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান রাজবাড়ীতে শেখ হাসিনার নির্দেশে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে সম্মানি বিতরণ অবৈধ ড্রেজার ব্যবসায়ীকে জরিমানা, ৭টি ড্রেজার জব্দ গোয়ালন্দে অসহায় মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ এমপি কন্যা চৈতীর উদ্যোগে জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মাধ্যমে শেষ হলো রাজবাড়ী সার্কেল আয়োজিত ইসলামিক কুইজ প্রতিযোগিতা ২০২১ করোনা ভাইরাস থেকে পরিত্রাণের জন্য রাজবাড়ী সার্কেলের বিশেষ দোয়া মাহফিল

রাজবাড়ীতে ২টি মন্দিরে ২টি মূর্তি ভাঙচুর

রনি মন্ডল | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ১৩১ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ৩১ মে, ২০২১

0Shares

সুজন বিষ্ণুঃ রাজবাড়ী সদর উপজেলার দাদশী ইউনিয়নের বক্তারপুর গ্রামের ‘দাদশী বারোয়ারী মাতৃ মন্দির থেকে কালীমূর্তি ও বক্তারপুর ভুঁইয়াবাড়ি পারিবারিক মন্দিরের সরস্বতি মূর্তি ভাঙচুর ও মন্দির থেকে মূর্তি বের করে পাশের দাদশী সিংগা সড়কের মাঝখানে রেখে গেছে দুর্বৃত্তরা। রোববার মধ্যরাতে এ ঘটনাটি ঘটে।

খবর পেয়ে রাজবাড়ী জেলা পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। সকালেই ঘটনাস্থলে আসেন রাজবাড়ীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (রাজবাড়ী সদর সার্কেল) মোঃ শরিফউজ্জামান, রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদারসহ জেলা পুলিশের তিনটি টিম।

রাজবাড়ী সদর থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, মন্দির ভাঙচুরের বিষয়ে কেউ অভিযোগ করলে আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

দাদশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ লোকমান হোসেন বলেন, একটি মহল শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নষ্ট করার জন্য এমন জঘন্য ঘটনা ঘটিয়েছে। অপরাধীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের আশ্বাষ দিয়েছেন মন্দির কমিটির সদস্যদেরকে ।

বারোয়ারী মাতৃ মন্দিরের সভাপতি অসিম কুমার দাস বলেন, আগে কখনো এই মন্দিরে এমন কিছু হয়নি। দুর্বৃত্তরা কেন এ ধরনের ঘটনা ঘটালো তা কিছুতেই বুঝতে পারছি না। মন্দিরে দুটি চিহ্ন রেখে গেছে দুর্বৃত্তরা।

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জয়দেব কর্মকার বলেন, দাদশী বারোয়ারী মাতৃ মন্দিরে সব ধরনের পুজা হয়। মন্দিরে থাকা কালীমূর্তিটিকে ভেঙে পাশের সড়কের ঠিক মাঝখানে রেখে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এছাড়াও মন্দিরে দুটি চিহ্ন একে রাখা হয়েছে। এর আগেও রাজবাড়ীতে এমন অনেক ঘটনা ঘটেছে বলে জানান তিনি। তবে প্রশাসন কাউকে আইনের আওতায় আনতে পারেনি বলেই এমন ঘটনার বার বার পুনরাবৃত্তি হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।
বাংলাদেশ পুজা উদযাপন পরিষদ রাজবাড়ী সদর উপজেলার সভাপতি অরুন সরকার বলেন, এ ঘটনায় হিন্দু সমাজ আতঙ্কিত হয়ে পরেছে।

দোষীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়েছে সংগঠনটি।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg