শিরোনাম
দৌলতদিয়া যৌনপল্লী থেকে দৌড়ে পালালেন এসআই উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক কে হত্যাচেষ্টায় গুরুতর আহত নির্বাচিত চেয়ারম্যানকে দুধ দিয়ে গোসল করালেন এলাকাবাসী  রাজবাড়ীতে মাদক মামলায় দুই মাদক ব্যবসায়ীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বালিয়াকান্দিতে প্রতিপক্ষের হামলায় আনারস প্রতীকের কর্মী আহত  চালককে হত্যা করে মোটরসাইকেল ছিনতাই : চারজনের যাবজ্জীবন খাবারের মেয়াদ নিয়ে বনফুলের এ কেমন প্রতারণা! বালিয়াকান্দিতে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ  চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে জেলেদের ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগ ফরিদপুরের তিনটি উপজেলায় চেয়ারম্যান হলেন যারা

দু’ঈদের রাতের ফযিলত

ষ্টাফ রিপোর্টার | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ৩৮৮ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৩ মে, ২০২১

0Shares

দু’ঈদের রাত অত্যন্ত ফযিলতপূর্ণ। এ রাতে মহান আল্লাহ পাক অসংখ্য বান্দাকে ক্ষমা করে দেন। দু’ঈদের রাতে ইবাদতকারী কেয়ামত দিবসে ভীত সন্ত্রস্ত হবে না; বরং আনন্দ ও প্রফুল্ল থাকবে।
দু’ঈদের রাতে নফল ইবাদতঃ বছরে পাঁচটি রাত অধিক মর্যাদাবান এবং দোয়া কবুলের রাত। এ সকল রাতে জাগ্রত থেকে ইবাদত-বন্দেগী করা মুমিনের জন্য পরম সুযোগ। উম্মুল মু’মিনিন হযরত আয়েশা (রাঃ) বলেন, আমি রাসূলে পাক (সাঃ) কে বলতে শুনেছি। তিনি বলেন- “ইয়ানসাখুল-ল্লাহুল-খাইরা ফি আরবাই লায়ালিন নাসখান লাইলাতাল-আদহা ওয়াল-ফিতরি ওয়া লাইলাতান—নিসফি মিন শা’বানা তানাসাখু ফিহাল-আজালু ওয়াল-আরঝাকু ওয়া-ইয়াকতুবু ফিহাল-হাজ্জু ওয়া ফি লাইলাতি আরাফাতা ইলাল—যানি”
অর্থঃ চার রাতে মহান আল্লাহ্‌ পাক কল্যাণের দরজা খুলে দেন।
১। ঈদুল আযহা তথা কুরবাণির ঈদের রাত।
২। ঈদুল ফিতরের রাত।
৩। শাবান মাসের চৌদ্দ তারিখের দিবাগত রাত (শবে বরাত)।
৪। আরাফার রাত (৮ই যিলহজ্জ দিবাগত রাত)। সূত্রঃ জামেউল কবির ও দায়লামী।
ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহার রাত জাগরণ করার অর্থাৎ নফল ইবাদত বন্দেগী আল-কুরআন পাক তেলাওয়াত নফল নামাজে কাটানোর বিরাট ফযিলত হাদিসে বর্ণিত হয়েছে। হযরত আবু উমামা (রাঃ) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সাঃ) ইরশাদ করেছেন, যে ব্যক্তি উভয় ঈদের রাত সাওয়াবের দৃঢ়বিশ্বাসের সাথে সাথে ইবাদতে কাটাবে, তার অন্তরে সেদিন মৃত্যুবরণ করবে না, যেদিন মানুষের অন্তর মৃত হয়ে যাবে। (অর্থাৎ কেয়ামত দিবসে ভীত-সন্ত্রস্ত হওয়া থেকে রক্ষা পাবে ।) সূত্রঃ তারগীব ও তাবহীব।
হযরত আবু হোরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সাঃ) ইরশাদ করেছেন, তাঁর উম্মতকে রমযান মাসের শেষ রাত ক্ষমা করে দেয়া হয় । আরয করা হলো, ইয়া রাসূলুল্লাহ (সাঃ)! আপনি কি লাইলাতুল কদরের কথা বলছেন ? তিনি বললেন, না। (রমযান মাসের সর্বশেষ রাত) যখন আমলকারী আমল পূর্ণ করে, তার পরিপূর্ণ প্রতিদান দিয়ে দেয়া হয় । সূত্রঃ মুসনাদে আহাম্মাদ।
হযরত আনাস ইবনে মালেক (রাঃ) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সাঃ) ইরশাদ করেছেন, যখন লাইলাতুল কদর হয়, তখন জিবরাঈল (আঃ) ফেরেশতাগণের জামায়াতের সাথে উপস্থিত হন এবং সেসব বান্দার জন্য রহমতের দোয়া করতে থাকেন, যারা দাঁড়িয়ে বা বসে আল্লাহ্‌র যিকিরে নিমগ্ন থাকেন। অতঃপর যখন ঈদের দিন হয়, মহান আল্লাহ্‌ পাক তাঁর ফেরেশতাগণের সামনে বান্দাদেরকে পেশ করে গর্ব করেন। মহান আল্লাহ্‌ পাক ইরশাদ করেন, হে আমার ফেরেশতাগণ! (বল) পারিশ্রমিকের বিনিময়ে আমলকারী সেই ব্যক্তির কি পুরস্কার যে তার আমল পূর্ণ করে দিয়েছে ? ফেরেশতাগণ আরয করেন, হে আমাদের প্রতিপালক! তার পুরস্কার হলো তার সম্পূর্ণ পারিশ্রমিক দিয়ে দেয়া। মহান আল্লাহ্‌ পাক ইরশাদ করেন, হে আমার ফেরেশতাগণ! আমার বান্দা ও আমার বান্দীরা আমার ফরয হুকুম আদায় করেছে যা তাদের দায়িত্ব ছিল। অতঃপর (ঈদের নামাযের জন্য) বের হয়েছে এবং (আমার কাছে) প্রার্থনা করছে। আমার ইজ্জত, আমার জালাল, আমার মর্যাদা ও আমার বড়ত্বের কসম! আমি অবশ্যই অবশ্যই তাদের দোয়া (প্রার্থনা) কবুল করব। অতঃপর মহান আল্লাহ্‌ পাক ইরশাদ করেন, তোমরা ফিরে এসো। আমি তাদেরকে ক্ষমা করে দিয়েছি এবং তাদের গুনাহসমূহকে নেক আমলে পরিণত করে দিয়েছি। ফলে তারা (ঈদের নামায শেষ করে ) ক্ষমাপ্রাপ্ত হয়ে ফিরে আসে। সূত্রঃ মিশকাত শরীফ ।
দু’ঈদের রাত আমাদের মাঝে বছরান্তে ফিরে আসে। এ দু’রাতের গুরুত্ব ও ফযিলত বুঝে পুণ্য হাসিল করার এক সুবর্ণ সুযোগ, তাই তা অর্জন করা আমাদের সকলের একান্ত কর্তব্য।
আল্লাহুম্মা সাল্লে আলা মুহাম্মাদ ওয়ালা আলে-মুহাম্মাদ।
লেখক ও গবেষকঃ মুফতি মওলানা মুহাম্মাদ রুকুন উদ্দীন ক্বাদরী।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg