মোবাইলে টিকটক ছাড়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া।। সংঘর্ষে আহত ৪ জন।

রনি মন্ডল | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ১৫২ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ২৪ মার্চ, ২০২১

0Shares

 

কুমারখালী প্রতিনিধি।

কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী নন্দলালপুর ইউনিয়নের আলাউদ্দিন নগরে ( ২৩ )মার্চ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাবেক স্ত্রী কে নিয়ে মোবাইলে টিকটক ছাড়াকে কেন্দ্র করে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে দুই পক্ষের ৪ জন আহত হয়।

উল্লেখ্য, ৮ মাস আগে আলাউদ্দিন নগরের হৃদয় হোসেনের মেয়ে কনা খাতুনের (১৮) সঙ্গে বিয়ে হয় পুটিয়া গ্ৰামের খালেক শেখের ছেলে হাসানের(১৮) সঙ্গে। কিছু দিন আগে তাদের মধ্যে ডিভোর্স হয়। হাসান গত ১৯ মার্চ তার মোবাইলে থাকা সাবেক স্ত্রী কনার ভিডিও দিয়ে টিকটক তৈরি করে মোবাইলে ছাড়ে। এই টিকটক কে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।
এই বিষয়ে গ্ৰামের মধ্যে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বসাবসির করে সমাধান করতে চেষ্টা করা হয়। বৈঠকে দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। সংঘর্ষে গুরুতর আহত হয় ছেলে পক্ষের সাব্বির হোসেন, হোসাইন, সর্ব সাং- পুটিয়া, মেয়ের পক্ষে মিলন, সাহেব আলী সর্ব সাং- আলাউদ্দিন।
হাসানের চাচাতো ভাই আশরাফুল ইসলাম বলেন, আমরা বিষয়টি শুনতে পেয়ে হাসানকে শাসন করি। সন্ধ্যায় কনার চাচা মিলন, হাসান কে আলাউদ্দিন নগরে মারধর করে।

কনার চাচা মিলন জানান, কনার ছবি দিয়ে ফেসবুকে ছাড়ে। এর আগেও হাসানকে নিষেধ করা হয়। হাসানের নানা সাহেব আলী বলেন, এই বিষয়ে হাসানের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় এই সময় হাসানের বাবা খালেক উপস্থিত হয়। এই সময় তারা আমাদের মারধর করে।

সংঘর্ষের ঘটনায় কুমারখালী থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
আহতদের কুমারখালী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কুমারখালী থানা অফিসার ইনচার্জ মজিবুর রহমান জানান, আলাউদ্দিন নগরে সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি।
এই বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত দুই পক্ষই মামলার প্রস্তুতি চলছিল।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg