শিরোনাম
গোয়ালন্দে একদিনে নারীসহ ১৩ আসামি গ্রেপ্তার পাটুরিয়া ঘাটে গাড়িসহ ফেরি ডুবি- এক ঘণ্টার জন্য গোয়ালন্দ উপজেলার ইউএনও হলেন বাবলী- শিবালয়ে নিষিদ্ধ সময়ে যমুনার চরে দিনব্যাপী ইলিশের হাট দৌলতদিয়ার যৌনপল্লিতে যৌনকর্মীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার- গোয়ালন্দে কৃষকদের বাধা উপেক্ষা করে প্রভাবশালী মহল মরাপদ্মায় ড্রেজার দিয়ে অবাধে মাটি উত্তোলন করছে দৌলতদিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক বহিস্কার গোয়ালন্দে ছাত্রলীগ নেতাকে মারধরের অভিযোগে উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আটক- গোয়ালন্দে ৭০০ গ্রাম গাঁজাসহ দুই জন আটক গোয়ালন্দ প্রবাসী ফোরামের উদ্যোগে অসচ্ছল মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান

দৌলতদিয়া ইউপি চেয়ারম্যানের উপর সন্ত্রাসী হামলায় থানায় মামলা, গ্রেপ্তার-১

জহুরুল ইসলাম হালিম | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ৫৪৯ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : রবিবার, ২১ মার্চ, ২০২১

0Shares
  1. জহুরুল ইসলাম হালিম:

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মো. আব্দুর রহমান মন্ডলের উপর সন্ত্রাসী হামলা ঘটনায় মামলা হয়েছে। রহমানের চাচাতো ভাই আরিফ মন্ডল বাদী হয়ে ২০ মার্চ গোয়ালন্দ ঘাট থানায় ১৬ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞতনামা আরো ৫/৭ জনের বিরুদ্ধে মামলাটি করেছেন। এতে গোয়ালন্দ পৌর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সুজ্জলকে প্রধান আসামী করা হয়েছে। এজাহারভুক্ত অপর আসামীরা হলেন মুনছুর বেপারী, এবিএম বাতেন, সজিব, জীবন, লিয়াকত হোসেন, গৌতম, নাবিল, রাজ্জাক, শাওন মন্ডল, মাসুদ মোল্লা, রুবেল, মোস্তফা, রাকিব প্রামানিক, বাবু মোল্লা ও শামীম। এর মধ্যে ৬ নম্বর আসামী লিয়াকত হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তিনি গোয়ালন্দ পৌর আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক।

পুলিশ ও মামলার এজহার সূত্রে জানা গেছে, গত ১৯ মার্চ শুক্রবার রাতে গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে দলীয় সভা শেষে আব্দুর রহমান তাঁর ভাগিনা কাউছার ফকিরের মোটরসাইকেলে করে দৌলতদিয়া বেপারি পাড়ার নিজ বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। এসময় গোয়ালন্দ পৌরসভার ঘোনা পাড়া নামক স্থানে পৌঁছালে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তার মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে সশস্ত্র হামলা চালায়। এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি ভাবে কুপিয়ে রহমানকে মারাত্মক জখম করে। তাঁর আর্তচিৎকার শুনে স্থানীরা এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা দ্রুত পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে অবস্থার অবনতি দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় গুরুতর আহ আব্দুর রহমান মন্ডলের চাচাতো ভাই আরিফ মন্ডল বাদী হয়ে ২০ মার্চ শনিবার ১৬ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞতনামা আরো ৫/৭ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে। এজহার ভুক্ত ৬ নম্বর আসামী লিয়াকত হোসেনকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। রাজবাড়ীর আদালতের নির্দশে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg