শিরোনাম
সরকারের মহাপ্রকল্প থাকলেও পদ্মায় চলছে অবৈধ বালু উত্তোলন। অফিস ফাঁকি দিয়ে নারী নিয়ে স্পা সেন্টারে জেলা রেজিস্ট্রার! মানব পাচার মামলা: দুই সপ্তাহেও গ্রেফতার হয়নি আসামীরা মানিকগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন: সভাপতি আমিনুল, সম্পাদক নুরুজ্জামান গোয়ালন্দে ৪ কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক কাজী ছালামের বিরুদ্ধে বাল্যবিয়ে পড়ানোসহ নানা অভিযোগ গোয়ালন্দে পানিতে ডুবে নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু গোয়ালন্দে বিদেশে পাঠানোর প্রলোভনে বাগানে নিয়ে এক নারীকে গণধর্ষনের অভিযোগ কৃষকের বাড়ি নির্মাণে আ.লীগ নেতার চাঁদা দাবি, থানায় অভিযোগ ছাত্রীদের উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় শিক্ষককে পেটালো সাবেক ২ ছাত্র

আধিপত্য বিস্তারে দৌলতদিয়া ঘাটে হামলা, আহত ৭জন গ্রেপ্তার ১

নিউজ ডেস্ক | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ৩৪৮ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : শুক্রবার, ১২ মার্চ, ২০২১

0Shares

জহুরুল ইসলাম হালিম: রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ঘাটে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার রাতে হামলার ঘটনা ঘটে। এতে ৭ জন আহত হয়েছেন।

এর মধ্যে গুরুতর অবস্থায় গোয়ালন্দ পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র নজরুল ইসলাম মণ্ডলের আপন ছোট ভাই মোস্তফা মণ্ডল (৩৫) ও কৃষকলীগ কর্মী রফিক সরদারকে (২৫) ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
আরো ৫ জন গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ চিকিৎসাধী রয়েছে।

এ ঘটনায় ১২ মার্চ শুক্রবার ভোরে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ দৌলতদিয়া ইউনিয়ন কৃষকলীগের আহবায়ক মো. বাকেন শেখকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে।

আহত মোস্তফা মন্ডল গোয়ালন্দ উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। হামলায় আহত তার পক্ষের কর্মীরা হলো গোয়ালন্দ পৌরসভার জুড়ান মোল্লাপাড়ার আফজাল বিশ্বাস (৩০), দৌলতদিয়া ছিদ্দিক কাজীরপাড়া ইদ্রিস মণ্ডল (৩৫), আফতার মণ্ডল (৪৫), আবদুস সালাম (৩৫) এবং কিয়ামদ্দিন পাড়ার সহিদ মণ্ডল (৩৮)।

আহত অপর যুবক রফিক সরদার (২৫) দৌলতদিয়া ইউনিয়ন কৃষকলীগের কর্মী বলে জানা গেছে। সে গ্রেপ্তারকৃত বাকেন গ্রুপের সদস্য বলে যানাযায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে , দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে পারাপার হওয়া বিভিন্ন পন্যবাহী যানবাহন বিভিন্ন প্রভাবশালী গ্রুপের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। এর মধ্যে ফলের গাড়িগুলো প্রায় ১ বছর ধরে নিয়ন্ত্রণ করছে আমজাদ-বাকেন নামে বহুল আলোচিত একটি গ্রুপ। এর আগে এই গাড়িগুলোর (১’শ/ দেড়’শটি) নিয়ন্ত্রণ ছিল যুবলীগ নেতা মোস্তফা মন্ডল গ্রুপের নিয়ন্ত্রনে। গোয়ালন্দ পৌরসভার মেয়র হিসেবে ঢাকায় শপথগ্রহন শেষে ১১ মার্চ বৃহস্পতিবার এলাকায় ফেরেন মোস্তফা মন্ডলের বড়ভাই মো. নজরুল ইসলাম মন্ডল। দুপুরে তাকে দলের পক্ষ হতে দৌলতদিয়া ঘাটে বিশাল গন সংবর্ধনা দেয়া হয়। ওইদিন রাতেই ঘাটে ফলের গাড়ির নিয়ন্ত্রণ নিতে চেষ্টা চালায় মোস্তফা মন্ডল ও তার সমর্থকরা। এতে বাঁধা সৃষ্টি করে আমজাদ-বাকেন গ্রুপ। তারা ঘটনা আঁচ করতে পেরে পূর্ব হতেই সশস্ত্র অবস্থায় সংগঠিত ছিল। তাদের হামলা মোস্তফা মন্ডলসহ তাদের পক্ষের ৬ জন আহত হন। আমজাদ-বাকেন গ্রুপের আহত হন ১ জন।

এ দিকে গোয়ালন্দ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত আফজাল হোসেন দাবি করেন, আমরা ঘাটে মোস্তফা মন্ডলের বাড়ির সামনে তার অফিসে বসে মোস্তফা মণ্ডলসহ ৭-৮ জন কথা বলতেছিলাম। সন্ধ্যার পর আমজাদ-বাকেনের নেতৃত্বে ৩৫-৪০জন লোক বিনা উস্কানিতে লাঠিসোঁটা নিয়ে আমাদের উপর অতর্কিতভাবে হামলা করে। আমজাদ-বাকেন ভয়ংকর চরমপন্থী সন্ত্রাসী। আত্ম সমর্পনের পর তারা দৌলতদিয়া ঘাটে ত্রাসের রাজত্ত্ব কায়েম করেছে। তারা ফলের গাড়িতে চাঁদাবাজি করছে।

এ ঘটনায় গোয়ালন্দ পৌরসভার নব-নির্বাচিত মেয়র মো.নজরুল ইসলাম মণ্ডল বলেন, শপথ শেষে বৃহস্পতিবার দুপুরে গোয়ালন্দে ফিরে বাসায় বিশ্রামে ছিলাম। আমি ন্যক্কারজনক এ ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

এ প্রসঙ্গে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল তায়াবীর বলেন, পরিস্থিতি বর্তমানে নিয়ন্ত্রনে আছে । এ ঘটনায় মোস্তফা মন্ডলের ভাই আইয়ুব মন্ডল বাদী হয়ে থানায় ১০-১২ জনের বিরুদ্ধে শুক্রবার মামলা দায়ের করেছেন। এর আগেই আমরা এজাহারভুক্ত আসামী বাকেন শেখকে গ্রেপ্তার করেছি । বাকিদের গ্রেপ্তারে পুলিশ তৎপর আছে। ঘাটের আধিপত্য নিয়ন্ত্রন ও পরিবহনে দালালিকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে বলে আমরা জানতে পেরেছি।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg