শিরোনাম
জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মাধ্যমে শেষ হলো রাজবাড়ী সার্কেল আয়োজিত ইসলামিক কুইজ প্রতিযোগিতা ২০২১ করোনা ভাইরাস থেকে পরিত্রাণের জন্য রাজবাড়ী সার্কেলের বিশেষ দোয়া মাহফিল গোয়ালন্দে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার নতুন পোশাক পেল সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা দৌলতদিয়ায় হেরোইনসহ ৩ জন আটক রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ভ্রাম্যমান আদালতে ব্যবসায়ীসহ ৫জনকে অর্থ জরিমানা পশ্চিম আকাশে চাঁদ দেখা গিয়াছে, আগামীকাল থেকে রোজা শুরু  গোয়ালন্দে গাঁজা ও নগত টাকা সহ এক মাদককারবারি আটক দৌলতদিয়ায় সেই গৃহবধূ, ওসির হস্তক্ষেপে ৭ দিন পর নিজ ঘরে প্রবেশ করলেন গোয়ালন্দে তৈরি হচ্ছে রং-চিনির মিশ্রণে ‘খাঁটি’ আখেঁর গুড় রাজবাড়ীতে নতুন করে ৫৪ জন করোনা আক্রান্ত

স্টিলের হাতলে খুঁড়িয়ে হাটছে ছোট্ট ইশিতা, কৃত্রিম পা তৈরিতে সহযোগিতার আবেদন

জহুরুল ইসলাম হালিম | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ২০৮ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ৮ মার্চ, ২০২১

0Shares

জহুরুল ইসলাম হালিমঃ

স্টিলের হাতলে জীবনের রঙ নিভে যেতে বসেছে ছোট্ট শিশু ইশিতার (১২)। মাত্র ১১ বছর বয়স থেকে এক পায়ে কাঁঠের হাতলে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হাটতে হচ্ছে শিশুটিকে। একটি পাঁয়ের সাথে অন্য পাঁয়ের জন্য স্টিলের হাতল নিয়ে ইশিতাকে দুঃসহ জীবন যাপন করতে হচ্ছে।

যে বয়‌সে পা‌খির ম‌তো ডানা মে‌লে দৌড়ঝাপ আর উল্লা‌সে অ‌বিরাম খেলার সাথী‌দের নি‌য়ে ছু‌টে চলার কথা। অথচ এক পা‌য়ে স্টিলের হাতলে জীবনকে টে‌নে নি‌তে হ‌চ্ছে। এক‌টি টিউমার থা‌মি‌য়ে দি‌য়ে‌ছে শিশু‌টির জীব‌নের গ‌তি। তা‌কে নি‌য়ে চরম হতাশায় প‌রিবার। সামান্য কিছু টাকার অভা‌বে কৃ‌ত্রিম পা লাগা‌তে পার‌ছেন না বাবা-মা।

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ৪ নং ওয়ার্ড নুরু মন্ডলের পাড়া এলাকার রিকশা চালক ঈমান শেখের মেয়ে। বড় সিংড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ুয়া ১০ বছর বয়সে ইশিতার পায়ে টিউমার ধরা পড়ে কিন্তু আর্থিক টানা পরেনে চিকিৎসা করাতে দেরি হওয়ায় মেয়েটির পা কেটে ফেলতে হয়, আর সেখান থেকেই শুরু কষ্ট নামক গ‌ল্পের। দু‌র্বিসহ গল্প আজ প্রায় দের বছর ছুই ছুই করছে। ইশিতার ডান পায়ের সঙ্গী যেন এক জোড়া স্টিলের হাতল।

স্বাভাবিকভাবে চলতে শিশু ইশিতার এক‌টি কৃত্রিম পা দরকার। খুব বে‌শি টাকার ব্যাপার না। ৭০ থে‌কে ৮০ হাজার টাকা। কিন্তু ইশিতার প‌রিবা‌রের কা‌ছে এটাই অ‌নেক বড় বোঝা। ত‌বে বাবা-মা স্বপ্ন দে‌খেন তা‌দের প্রিয় সন্তা‌নের পা‌শে কেউ না কেউ দাঁড়া‌বে। আবার হয়তো ‌কৃত্রিম পায়ে স্বাভা‌বিকভা‌বে হাঁট‌বে ১২ বছ‌রের ইশিতা।

শিশু ইশিতা জানায়, স্টিলের হাতল দিয়ে হাটতে তার অনেক কষ্ট হয়। মন চায় সবার সাথে হাঁট‌তে, খেল‌তে, স্কু‌লে যেতে, ত‌বে পা‌রিনা পাঁয়ের জন্য।

ইশিতার বাবা ঈমান শেখ বলেন, ২ মেয়ে ১ ছেলেকে নিয়ে আমাদের সংসার। মেয়ের চিকিৎসা করাতে গিয়ে ধার-দেনা করে বাড়ি বন্ধক রেখে মেয়ের পায়ের অপারেশন করেছি এখন আমি ভাড়া রিকশা চা‌লি‌য়ে ও ঈশিতার মা হোটেলে কাজ করে কোনম‌তে সংসার চালায়ে ও দেনা পরিশোধ করার চেষ্টা করছি। মে‌য়ের পা লাগানোর টাকা পা‌বো কোথায়। ‌মে‌য়ের পা’টি লাগা‌তে পার‌লে মে‌য়েটা একটু শা‌ন্তি পেত।

দৌলতদিয়া ইউনিয়নের সাবেক মহিলা মেম্বার এলিনা জানান, ২০১৯ সালের প্রথম দিকে মেয়েটির পায়ে টিউমার ধরা পড়ে, ধীরে ধীরে তা জটিল আকার ধারণ করলে ২০২০ সালের প্রথম দিকে মেয়েটির দরিদ্র পিতা বাড়ি বন্ধক রেখে ধার দেনা করে অপারেশন করে মেয়েটির পা কেটে ফেলতে হয়। এমতাবস্থায় মেয়েটির একটি কৃত্রিম পা লাগানোর বিষয়ে ফরিদপুরে বি‌শেষজ্ঞ‌ ডাক্তারদের সাথে যোগাযোগ করেছি। কৃত্রিম পা লাগাতে খরচ হবে প্রায় ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকা। এ অর্থ ব্যায় করার মত অবস্থা মেয়েটির পরিবারের নেই। এ অবস্থায় সমাজের বিত্তশালী মানুষেরা যদি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয় তাহলে মেয়েটি একটি কৃত্রিম পা লাগানো সম্ভব হবে বলেও তিনি জানান। সাহায্যের জন্য ঈশিতার মা রেশমি বেগমের নম্বর (বিকাশ) 01944-860426

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg