লিবিয়া উপকূলে অভিবাসীবাহী নৌকাডুবিতে ৪৩ জনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ২০৪ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী, ২০২১

0Shares

ইউরোপে অভিবাসনের আশায় ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেওয়ার চেষ্টাকালে লিবিয়া উপকূলে নৌকাডুবে অত্যন্ত ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (২০ জানুয়ারি) জাতিসংঘের অভিবাসন বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর এ তথ্য জানিয়েছে।

ইউএনএইচসিআর জানিয়েছে, মঙ্গলবার ইউরোপ অভিমুখী অভিবাসন প্রত্যাশীদের নৌকাটি ভূমধ্যসাগরে ডুবে যায়। লিবিয়ার পশ্চিম উপকূলের জুওয়ার শহরের উপকূল রক্ষীরা ১০ জনকে জীবিত উদ্ধার করতে সমর্থ হয়েছে। মারা যাওয়া সবাই পুরুষ এবং তারা পশ্চিম আফ্রিকার দেশগুলো থেকে এসেছিল। ‘মঙ্গলবার ভোরে জুওয়াইয়া শহর থেকে নৌকাটি রওনা দেয়। চার ঘণ্টা পর উত্তাল সাগরে এর ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যায় এবং এটি ডুবে যায়।’

এদিকে ২০১১ সালে অভ্যুত্থানের পরে স্বৈরশাসক গাদ্দাফির পতন ও তাকে হত্যা করার পর পালিয়ে ইউরোপ যাওয়ার জন্য আফ্রিকা ও আরব অভিবাসীদের প্রধান ট্রানজিট পয়েন্ট হয়ে ওঠে লিবিয়া। বেশিরভাগ অভিবাসীই অনিরাপদ এবং ছোট রাবারের নৌকায় চড়ে বিপদসঙ্কুল ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেয়ার চেষ্টা করে।

আইওএম জানায়, ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে ২০১৪ সাল থেকে এ পর্যন্ত ২০ হাজারেরও বেশি শরণার্থীর মৃত্যু হয়েছে। তবে অভিবাসী ঠেকাতে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে লিবিয়ার উপকূলরক্ষী এবং অন্যান্য বাহিনীর সাথে একজোট হয়ে কাজ করছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

প্রসঙ্গত, অবৈধভাবে ইউরোপ অভিমুখী আফ্রিকার দেশগুলোর বাসিন্দাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ট্রানজিট পয়েন্ট হয়ে দাঁড়িয়েছে লিবিয়া। প্রায়ই ভূমধ্যসাগরে নৌকা ডুবে অভিবাসন প্রত্যাশীদের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। চলতি বছর নৌকা ডুবে অভিবাসী মৃত্যুর এটাই প্রথম ঘটনা।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg