শিরোনাম
গোয়ালন্দে একদিনে নারীসহ ১৩ আসামি গ্রেপ্তার পাটুরিয়া ঘাটে গাড়িসহ ফেরি ডুবি- এক ঘণ্টার জন্য গোয়ালন্দ উপজেলার ইউএনও হলেন বাবলী- শিবালয়ে নিষিদ্ধ সময়ে যমুনার চরে দিনব্যাপী ইলিশের হাট দৌলতদিয়ার যৌনপল্লিতে যৌনকর্মীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার- গোয়ালন্দে কৃষকদের বাধা উপেক্ষা করে প্রভাবশালী মহল মরাপদ্মায় ড্রেজার দিয়ে অবাধে মাটি উত্তোলন করছে দৌলতদিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক বহিস্কার গোয়ালন্দে ছাত্রলীগ নেতাকে মারধরের অভিযোগে উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আটক- গোয়ালন্দে ৭০০ গ্রাম গাঁজাসহ দুই জন আটক গোয়ালন্দ প্রবাসী ফোরামের উদ্যোগে অসচ্ছল মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান

৫ উইকেটে জয় পেল মাহমুদউল্লাহ একাদশ

নিউজ ডেস্ক | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ২০৯ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২০

0Shares

টসে হেরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করতে নামেন তামিম ইকবালের নেতৃত্বাধীন দল তামিম একাদশ। ওপেনিং করেন ২ তামিম। তামিম ইকবাল ও তানজিদ হাসান তামিম। যদিও প্রথম ম্যাচে ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারেননি তামিম ইকবাল।ব্যক্তিগত ২ রানে তাকে লেগ-বিফোরের ফাঁদে ফেলে সাজঘরে ফিরিয়েছেন রুবেল হোসেন। এরপর ওয়ান ডাউনে নামে এনামুল হক বিজয়। ছোট তামিমের সাথে বিজয়ের জুটি গড়া শুরু করলে ম্যাচে বাগড়া দেয় বৃষ্টি। বেশ কিছুক্ষণ সময় বৃষ্টির পেটে চলে যাওয়ায় কমে এসেছে ম্যাচের দৈর্ঘ্য। প্রতি ইনিংসে ৩ ওভার করে কমানোর সিদ্ধান্ত নেয় আম্পায়াররা।

বৃষ্টি শেষে আবার মাঠে বল গড়ানো শুরু হয়। শুরুতে তামিম ইকবাল কিছু না করতে পারলেও ছোট তামিম অর্থাৎ তানজিদ হাসান তামিম ছিলেন ফরমে। তবে তাও বেশিক্ষণ টিকিয়ে রাখতে পারেন নি। ১৮ বলে ২৭ রান করে রুবেলের স্লোয়ারে বল হাওয়ায় ভাসিয়ে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান তিনি। তার ঠিক দুই বল পড়ে একই ভাবে আউট হন মিথুন। দুটো ক্যাচই তালুবদ্ধ করেন মুমিনুল হক সৌরভ। এরপর বিপর্যয় এড়ানোর চেষ্টায় এনামুল হক বিজয় যখন ভূমিকায়, তখন শাহাদাত হোসেন দিপুকে ১ রানে ফিরিয়ে উইকেটের মিছিল শুরু করেন পেসার সুমন খান। এরপর সুমন যথাক্রমে আউট করেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে ও বিজয়কে। সেখান থেকে তামিম একাদশের ঘুরে দাঁড়ানো প্রায় অসাধ্য ছিল। মেহেদী হাসানের চেষ্টা একটু আশা জাগালেও দলকে এনে দিতে পারেনি সম্মানজনক সংগ্রহ। তামিমদের ২৩ ওভার ১ বলে গুটিয়ে দেন মাত্র ১০৩ রানে।

জয়ের জন্য মাহমুদউল্লাহ একাদশের মাত্র প্রয়োজন ১০৬ রানের। ইনিংসের প্রথম ১৭ বল মোকাবেলা করে কোনো রানই নিতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ একাদশের ব্যাটসম্যানরা। ০ রানেই ফিরে যান লিটন , নাইম ,ইমরুল। তিন জনকেই সাজঘরে ফেরান মুস্তাফিজুর রহমান। ১৮তম বলে প্রথম রান আসে পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে নামা মাহমুদউল্লাহর ব্যাট থেকে। এরপর মাহমুদউল্লাহ ও মুমিনুল দেখেশুনে খেলে যান। তবে মাহমুদউল্লাহ ৩৯ বলে মাত্র ১০ রান করে সাজঘরে ফেরেন। এরপর ধিরে ধিরে মুমিনুল ও নুরুল হাসান সোহান দলকে জয়ের পথে এগিয়ে নিয়ে যান। ৬টি চার হাঁকানো মুমিনুল ৬২ বলে ৩৯ রান করে বিদায় নিলেও সাব্বির রহমানকে সাথে নিয়ে সোহান জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন। ৪১ রান করে সোহান অপরাজিত থাকেন। মাহমুদউল্লাহ একাদশ ৫ উইকেটে জয়ী হয়।

স্কোরঃ
মাহমুদউল্লাহ একাদশ : ১০৬/৫ (২৭ ওভার)
লিটন ০ (৮), নাইম ০ (১), মুমিনুল ৩৯ (৬২), ইমরুল ০ (৩), মাহমুদউল্লাহ ১০ (৩৯), সোহান ৪১* (৩৮), সাব্বির ৪ (১২),
সাইফউদ্দিন ৪-১-৮-২, মুস্তাফিজ ৭-২-১৪-১, শরিফুল ৪-০-২৮-০, মেহেদী ৫-০-১৮-০, তাইজুল ৬-০-২৭-২, আফ্রিদি ১-০-৫-০

শিহাবুর রহমান তিমন

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg