শিরোনাম
দৌলতদিয়া মডেল স্কুলের ছাত্রী লিমা হত্যার বিচারের দাবিতে রাজবাড়ীতে মানববন্ধন শেষ হলো অভিশপ্ত দিন সপরিবারে করোনামুক্ত হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন মেয়র আতিকুল ইসলাম মশক নিধনে নতুন প্রযুক্তি ব্যবহারের শুভ উদ্বোধন করলো ডিএনসিসি দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে চাঁদাবাজীর অভিযোগে গ্রেফতার-২ রাজবাড়ীর বাগমারা থেকে জৌকুড়া ঘাট মহাসড়কের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার দাবীতে মানববন্ধন রাজবাড়ীতে নতুন করে ৯ জন করোনা আক্রান্ত , মোট মৃত্যু ২৪ জন পদ্মায় ইলিশ ধরার দায়ে রাজবাড়ীতে ১১ জেলের কারাদণ্ড রাজবাড়ীতে আগামীকাল ফ্রান্সের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নিষেধাজ্ঞা শেষ আজ কাল থেকে ‘মুক্ত’ সাকিব

প্রথম ম্যাচে রোমাঞ্চকর জয় পেলো নাজমুল একাদশ

নিউজ ডেস্ক | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ৭৮ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ১২ অক্টোবর, ২০২০

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 11
    Shares

বিসিবি প্রেসিডেন্ট কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হয় মাহমুদউল্লাহ একাদশ ও নাজমুল একাদশ। টসে জিতে বোলিং এর সিদ্ধান্ত নেন নাজমুল একাদশের কাপ্তান নাজমুল।

ব্যাটিং এ নেমে শুরু থেকেই খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি মাহমুদউল্লাহর দল। দলীয় ২১ রানেই একে একে আউট হয়ে সাঁজ ঘরে ফিরে যান নাইম শেখ, লিটন দাস ও মুমিনুল হক। এরপর দলের রানের চাকার দায়িত্ব নেন কাপ্তান নিজেই,সাথে ছিলেন ইমরুল।দুজনে মিলে গড়ে তুলেন ৭৪ রানের জুটি। ব্যক্তিগত ৪০ রানেই বিদায় নেন ইমরুল। মাহমুদউল্লাহও অর্ধ-শতক হাকিয়ে ৫১ রান করে আউট হয়ে যায় । এর পর নাজমুল একাদশের অসাধারণ বোলিং তেমন কেউ মাঠে টিকে থাকতে পারেন নি। সাব্বির ২৫ বলে ২২ রান ও শেষে রাকিবুল ২২ বলে ১৫ রান করে ৪৮ তম ওভারেই সবকটি উইকেট হারিয়ে ফেলে মাহমুদউল্লাহ একাদশ। ইনিংস শেষে ৪৭.৩ ওভারে সংগ্রহ ১৯৬ রান।তাসকিন ১০ ওভারে ৩৭ রান দিয়ে ২ টি উইকেট নেন।

জয়ের জন্য প্রয়োজন ১৯৭ রান।টারগেট তেমন একটা বড় না হলেও পেসার এবাদত হোসেনের বোলিং ভেঙে দেয় নাজমুল একাদশের টপ অডার । দলীয় ৬০ রানের মধ্যে সাজঘরে ফিরে যান সাইফ হাসান, সৌম্য সরকার ও মুশফিকুর রহিম।এরপর কাপ্তান শান্ত ও আফিফ হোসেন মিলে জুটি গড়ার চেষ্টা করলে বাঁধা হয়ে দাঁড়ান মাহমুদউল্লাহ। তার জালে বন্দি পরেন আফিফ হোসেন। এরপর কাপ্তান শান্ত একাই দলের রান চালিয়ে যায় । তবে তিনিও (শান্ত) ২৯ বলে ২৮ রান করে রকিবুলের শিকার হয়ে ফিরে যান।দলের অবস্থা যখন শোচনীয় তখন তৌহিদ হৃদয় ও ইরফান সুক্কুর সাবধানী ব্যাটিং চালিয়ে যান।ষষ্ঠ উইকেটে দুইজনে গড়েন ১০৫ রানের অনবদ্য পার্টনারশিপ। মূলত তারাই দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেয়।যদিও অর্ধ-শতক হাঁকিয়ে সাজঘরে ফিরে যায় হৃদয়। নাঈম হাসান ৪২তম ওভারের প্রথম বলে ছক্কা মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন। ৭৮ বলে ৫৬ রান করে অপরাজিত থাকেন ইরফান। ৪ উইকেটে জয় লাভ করে নাজমুল একাদশ।

স্কোর কার্ডঃ
মাহমুদউল্লাহ একাদশ : ১৯৬/১০ (৪৭.৩ ওভার)
মাহমুদউল্লাহ ৫১ , ইমরুল ৪০
তাসকিন ৩৭-২ ,আল-আমিন ৪০-২(১ মেডেন)

নাজমুল একাদশ : ১৯৭/৪ (৪১.১ ওভার)
ইরফান ৫৬* ,হৃদয় ৫২
এবাদত ৪৬-৩, মাহমুদউল্লাহ ২৭-১

(শিহাবুর রহমান তিমন)

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর