ভিটামিন-‘এ’প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে রাজবাড়ীতে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা

সুকান্ত বিশ্বাস | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ৮০ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 27
    Shares

আজ বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় রাজবাড়ী সিভিল সার্জন অফিসের সম্মেলন কক্ষে জাতীয় ভিটামিন “এ” প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২০ উদযাপন উপলক্ষ্যে জেলা পর্যায়ের ৪০জন সাংবাদিকের সাথে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রাজবাড়ী সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম টিটন এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, রাজবাড়ী প্রেস ক্লাববের সাধারণ সম্পাদক ও মাতৃকণ্ঠ পত্রিকার সম্পাদক খোন্দকার আব্দুল মতিন, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আবু মুসা বিশ্বাস, রাজবাড়ী প্রেস ক্লাবের সহ সভাপতি রাজবাড়ী বার্তার সম্পাদক ও দৈনিক কালের কন্ঠের জেলা প্রতিনিধি জাহাঙ্গীর হোসেন, দৈনিক প্রথম আলোর রাজবাড়ী প্রতিনিধি এজাজ আহমেদ, দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদের রাজবাড়ী প্রতিনিধি খন্দকার রবিউল ইসলাম, বিজয় টিভির রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি শেখ আলিয়ান মামুন প্রমুখ।

সিভিল সার্জন অফিস

মতবিনিময় সভায় শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানোর প্রয়োজনীয়তার ওপর মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে বিভিন্ন তথ্য উপস্থাপন করেন রাজবাড়ী সিভিল সার্জন অফিসের নির্বাহী অফিসার ডাঃ নুসরাত সুলতানা।

শিশুর জন্য ভিটামিন ‘এ’ এর প্রয়োজনীয়তা এবং এর ফলে সৃষ্ট রোগ ও সমস্যা কথা উল্ল্যেখ করে তিনি তার উপস্থাপনায় বলেন, “৪ অক্টোবর জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।”

রাজবাড়ী সিভিল সার্জন অফিস থেকে দেওয়া তথ্য মতে ৪ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া এই ক্যাম্পেনের আওতায় রাজবাড়ী জেলার ৫ টি পৌরসভা এবং ৪২ টি ইউনিয়নের মোট ১২৮ টি ওয়ার্ডের প্রায় ১ লক্ষ ৩২ হাজার শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ১৫ হাজার ৯ শত ৮৭ জন শিশুকে লাল ক্যাপসুল এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ১ লক্ষ ১৬ হাজার ২ শত ৫৬ জন শিশুকে নীল ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

কোভিড-১৯ এর জন্য সামাজিক দূরত্ব এবং স্বাস্থ্য নিরাপত্তাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে এবারের এই ক্যাম্পেইন টি চলবে বলে জানান সিভিল সার্জন। তিনি জানান, “এইবার ২১৫৪ জন স্বেচ্ছাসেবক ১০৭৭ টি কেন্দ্রে ১৪ দিনে এই ভিটামিন ‘ এ ‘ ক্যাপসুল খাওয়াবে।”

শিশুরা যাতে কোনোক্রমেই ভিটামিন ‘এ’ খাওয়া থেকে বাদ না পড়ে। রাজবাড়ীর বিভিন্ন এলাকায় পত্রিকা ও টিভি চ্যানেলের মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণা চালাতে হবে। যাতে সবাই এ ব্যাপারে আরো বেশি সচেতন হতে পারে।

এরপর সাংবাদিকদের সাথে প্রশ্ন উত্তর পর্বে দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদের জেলা প্রতিনিধি খন্দকার রবিউল ইসলাম রাজবাড়ী জেলায় রক্ত কেনা-বেচা ও এই সংক্রান্ত তথ্য উপস্থাপন করে সিভিল সার্জনের কাছে জানতে চান সিভিল সার্জন এ বিষয়ে অবগত আছেন কিনা? এর উত্তরে সিভিল সার্জন বলেন, ” এ বিষয়টি আমার অবগত না। আমি অভিযোগ পেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবো এবং একই সাথে এরকম কোন ঘটনা যাতে না ঘটে সে বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

সভায় রাজবাড়ীতে কর্মরত প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর