শিরোনাম
দৌলতদিয়া মডেল স্কুলের ছাত্রী লিমা হত্যার বিচারের দাবিতে রাজবাড়ীতে মানববন্ধন শেষ হলো অভিশপ্ত দিন সপরিবারে করোনামুক্ত হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন মেয়র আতিকুল ইসলাম মশক নিধনে নতুন প্রযুক্তি ব্যবহারের শুভ উদ্বোধন করলো ডিএনসিসি দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে চাঁদাবাজীর অভিযোগে গ্রেফতার-২ রাজবাড়ীর বাগমারা থেকে জৌকুড়া ঘাট মহাসড়কের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার দাবীতে মানববন্ধন রাজবাড়ীতে নতুন করে ৯ জন করোনা আক্রান্ত , মোট মৃত্যু ২৪ জন পদ্মায় ইলিশ ধরার দায়ে রাজবাড়ীতে ১১ জেলের কারাদণ্ড রাজবাড়ীতে আগামীকাল ফ্রান্সের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নিষেধাজ্ঞা শেষ আজ কাল থেকে ‘মুক্ত’ সাকিব

ছাতকে ডাকাতি মামলার আসামী গ্রেফতার

নিউজ ডেস্ক | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ৫৫ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সংবাদটি শেয়ার করুন
  • 22
    Shares

২৯ জুন রাত ১০ টায় ছাতক রেলওয়ের নিরাপত্তা প্রহরী ফখরুল আলম প্রতিদিনের ন্যায় ছাতক রেলওয়ের গোডাউনের নৈশ প্রহরী হিসাবে ডিউটিতে নিয়োজিত হয়। সকাল ৬ টা পর্যন্ত ডিউটি শেষে নিজ বাসায় ফেরার কথা ছিল তার। কিন্ত অজ্ঞাত নামা ডাকাত দল রাত্রি অনুমান ২ ঘটিকার সময় গোডাউনের তালা ভেঙ্গে ভীতরে প্রবেশ করে নিরাপত্তা প্রহরী ফখরুল আলমকে নির্মম ভাবে হত্যা করে। গোডাউনে থাকা রেলওয়ের লৌহ জাতীয় বিভিন্ন মালামাল ডাকাতি করে নিয়ে যায়। পরেরদিন সকাল ০৮.৩০ মিনিটের সময় ছাতক রেলওয়ের গোডাউনে নৈশ্য প্রহরী ফখরুল আলম’র রক্তাক্ত লাশ পায় ছাতক থানা পুলিশ। এ ঘটনায় মৃত্যুর স্ত্রী বাদী হয়ে অজ্ঞাত নামা আসামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করিলে সুনামগঞ্জ জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বিপিএম এর দিক নির্দেশনায় এই চাঞ্চল্যকর ক্লু-লেস হত্যা মামলার দায়িত্ব পান ছাতক থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই হাবিবুর রহমান পিপিএম।

ডাকাত সর্দার আজম আলীর নেতৃত্বে একদল ডাকাত খুন সহ ডাকাতির ঘটনাটি সংগঠিত করে এ মর্মে দ্রুত সময়ের মধ্যে মামলার রহস্য উদঘাটন করেন এবং মামলার ঘটনায় জড়িত ইতিপূর্বে ডাকাত সর্দার আজম আলীর সহযোগী ০৫ জন আসামী গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। গ্রেফতার কৃত ০৫(পাঁচ)জন আসামীই বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করে। সুনামগঞ্জ জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বিপিএম’র দিক নির্দেশনায় সহকারী পুলিশ সুপার, ছাতক সার্কেল ,জনাব বিল্লাল হোসেন’র নেতৃত্বে ছাতক থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই হাবিবুর রহমান পিপিএম সহ থানার এসআই আতিকুল আলম খন্দকার, এসআই মুহিন উদ্দিন , এএসআই মহিউদ্দিন সহ কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ নজরুল ইসলাম’র সহায়তায় ০৯/০৯/২০২০ইং বুুুুধবার সিলেট কোম্পানীগঞ্জ থানাধীন চাটিবহর এলাকা হইতে ছাতক উপজেলার কালারুকা ইউনিয়নের গৌরিপুর গ্রামের মৃত সোনা মিয়ার পুুুত্র বর্তমানে পৌর শহরের মোগলপাড়া বাসিন্দা চাঞ্চল্যকর খুন সহ ডাকাতি মামলার আসামী আন্তঃজেলা ডাকাত আনোয়ার হোসেন(৩৮) কে গ্রেফতার করিতে সক্ষম হন। আসামী আনোয়ার ডাকাতি সহ চুরি মামলায় একাধিকবার সাজা ভোগ করেছে। আনোয়ার ডাকাতের বিরুদ্ধে ছাতক থানাসহ একাধিক ডাকাতি , ছিনতাই, দ্রুতবিচার আইনে মামলা রয়েছে। ফকরুল হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই হাবিবুর রহমান পিপিএম বলেন, কোন অপরাধী অপরাধ করে পার পাবে না। তাকে আইনের আওতায় আসতেই হবে। আজম আলী ডাকাত বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারায়
জবানবন্দি প্রদান করে। ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তফা কামাল গ্রেফতার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সুনামগঞ্জ(ছাতক) প্রতিনিধি

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর