শিরোনাম
দলীয় প্রতীক নিয়ে ইউপি নির্বাচনে দুইবার ভরাডুবি, এবার প্রার্থী হয়েছেন উপজেলায় গোয়ালন্দে হেরোইনসহ মাদক কারবারি আটক গোয়ালন্দে ইয়াবাসহ মাদক কারবারি গ্রেপ্তার গোয়ালন্দে ইয়াবাসহ মাদক কারবারি গ্রেপ্তার গোয়ালন্দে সঞ্চারণ সিরাত প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত কৃষককে অফিস থেকে বের করে দেওয়া সেই দুই কর্মকর্তাকে বদলি কখনো ম্যাজিস্ট্রেট, কখনো মেজর পরিচয়ে প্রতারণা করতেন মুক্তা পারভিন প্রেম করে বিয়ে, স্বামীর হাতেই মৃত্যু  ঈদ উপলক্ষে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ১৫ টি ফেরি ও ২২ টি লঞ্চ চলাচল করবে

ক্লাস ফাঁকি দিয়ে পদ্মা পাড়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে শিক্ষার্থীরা

ষ্টাফ রিপোর্টার | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ১৪৫ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

0Shares

ক্লাস ফাঁকি দিয়ে পদ্মা পাড়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে শিক্ষার্থীরা

সাইফুল ইসলাম, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি, ১৪ ফেব্রুয়ারী

স্কুল-কলেজ ফাঁকি দেওয়া সেই আদিকাল থেকেই হয়ে আসছে। কিন্তু বিষয়টি যখন অভ্যাসে পরিণত হয় তখন তা নিয়ে শঙ্কা দেখা দেয়। দিনের পর দিন স্কুল-কলেজে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে ক্লাসে অনুপস্থিত থাকছে অনেকেই। এই সময় বিভিন্ন রেস্টুরেন্ট কিংবা নির্জন স্থানে বন্ধুর সঙ্গে তারা মত্ত হচ্ছে আড্ডায়।

মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে পদ্মার পাড় সহ বিভিন্ন স্থানে বাড়ছে শিক্ষার্থীদের আনাগোনা। কলেজ কিংবা স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা বন্ধু ও বান্ধবীকে নিয়ে পদ্মায় একান্ত সময় কাটানোর পর ফিরে যাচ্ছে বাড়িতে।

অভিবাবকগণ কোনভাবেই বুঝতে পারছে না তাদের সন্তান স্কুল কিংবা কলেজ ফাঁকি দিচ্ছে। গত কয়েকদিন সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হরিরামপুর উপজেলার কুশিয়ারচর (কালিতলা) নামক পদ্মা নদীতে নৌকায় ঘনিষ্ঠভাবে পাশাপাশি বসে আছেন ঝিটকা খাজা রহমত আলী কলেজের ইউনিফর্ম পরা কয়েকজন ছাত্র-ছাত্রী।

এখানে যারা ঘুরতে আসে তাদের বেশির ভাগই স্কুল বা কলেজ ফাঁকি দিয়ে। ইউনিফর্ম পরা স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের ঘোরাঘুরির নামে আপত্তিকর আচরণে চরম বিব্রত হচ্ছেন পদ্মায় আসা সচেতন ব্যক্তিরা।

বিশেষ করে একাদশ এবং দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ইউনিফর্ম পরেই সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মেতে উঠছে আড্ডায়। দলে দলে তারা আড্ডা দিতে গিয়ে জড়িয়ে পড়ছে নানা ধরনের অপরাধ কর্মকাণ্ডে। প্রকাশ্যে ধূমপানও করছে নানা বয়সি মানুষের সামনে। ছেলেমেয়েরা হাত ধরে ব্যস্ত ঘুরাঘুরিতে। বসছে ঘনিষ্ঠভাবে। একে অপরকে জড়িয়েও ধরছে প্রকাশ্যে। উঠতি বয়সী এমন শিক্ষার্থীদের আচরণকে দৃষ্টকটু হিসেবে দেখছে সচেতন মহল।

সরজমিনে গিয়ে কথা হয় পদ্মার পাড়ে ঘুরতে আসা সোলাইমান নামের একজনের সাথে তিনি বলেন, এখানে প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ ঘুরতে আসেন। কিন্তু দেখছি শিক্ষার্থীরা ক্লাস ছেড়ে এখানে এসে আড্ডা দিচ্ছে। ভর-দুপুরে শিক্ষার্থীদের স্কুলে থাকার কথা থাকলেও আড্ডা দিচ্ছে বন্ধুদের সঙ্গে।

স্থানীয় ওমর ফারুক নামের এক ব্যক্তি বলেন, এখানে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বেড়াতে এসে লজ্জার মধ্যে পড়ছে অনেকেই। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিষয়টি দেখা উচিত। সবাই যেন এখানে বেড়াতে এসে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। এছাড়া ঘাট থেকে নৌকায় চড়ে পদ্মার মাঝে জেগে ওঠা চরে যাচ্ছে। সেখানে নির্জন স্থানে মাদক সেবন ও বিভিন্ন অপকর্মে লিপ্ত হচ্ছে এরা।

স্থানীয় সুজন নামের একজন বলেন, এখানে ঝিটকা খাজা কলেজের পোলাপান বেশি ঘুরতে আসে। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত খাজা কলেজের পোলাপাইন বেশি দেখা যায়।

ঝিটকা খাজা রহমত আলী কলেজের এক শিক্ষার্থী বলেন, বন্ধুদের সাথে ঘুরতে আসছি ভাই। তেমন কিছুনা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এক অভিভাবক বলেন, আমার বাচ্চা কোথায় যাচ্ছে স্কুলে আসছে কি না এটা দেখার আমাদের যেমন দায়িত্ব আছে স্কুল কর্তৃপক্ষেরও তো একটা দায়িত্ব আছে। স্কুল কর্তৃপক্ষ যদি এই বিষয়গুলো বিবেচনা করে তাহলে তো কোনো বাচ্চারা বাইরে যাওয়ার কথা না।

ঝিটকা খাজা রহমত আলী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোঃ সহিদুর রহমান বলেন, কলেজের ভাবমূর্তি যেন নষ্ট না হয় সেক্ষেত্রে আমরা আগামীকাল থেকে বিষয়টি দেখবো।

হরিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহ্ নূর এ আলম বলেন, আমরা নজরদারি রেখেছি যেন শিক্ষার্থীরা ক্লাস ছেড়ে পদ্মা পারে আড্ডা দিতে না পারে।

এ ব্যাপারে হরিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহরিয়ার রহমান বলেন, আমরা একটা সার্কুলার জারি করবো। প্রত্যেকটা কলেজের শিক্ষার্থীদের আমরা নোটিশ দিয়ে দিবো। আজকের মধ্যে সার্কুলার জারি করে আমরা ব্যবস্থা নিবো।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg