শিরোনাম
রাজবাড়ীতে মাদক মামলায় দুই মাদক ব্যবসায়ীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বালিয়াকান্দিতে প্রতিপক্ষের হামলায় আনারস প্রতীকের কর্মী আহত  চালককে হত্যা করে মোটরসাইকেল ছিনতাই : চারজনের যাবজ্জীবন খাবারের মেয়াদ নিয়ে বনফুলের এ কেমন প্রতারণা! বালিয়াকান্দিতে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ  চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে জেলেদের ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগ ফরিদপুরের তিনটি উপজেলায় চেয়ারম্যান হলেন যারা বিদেশে নেয়ার কথা বলে প্রতারণা ও টাকা আত্মসাতের অভিযোগ বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন এএসআইয়ের বিরুদ্ধে ভুয়া কাবিননামায় শারীরিক সম্পর্ক ও অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

কালুখালীর যুবলীগ নেতা লাবু ও কামালের বিরুদ্ধে ২৩ লক্ষ টাকা প্রতারনার মাধ্যমে হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

ষ্টাফ রিপোর্টার | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ১৭৩ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

0Shares

রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক লাবু জোয়াদ্দার ও শাওরইল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোঃ কামাল হোসাইন’র বিরুদ্ধে ব্যবসার নামে ২৩ লক্ষ টাকা প্রতারনার অভিযোগ করেছেন মিলন মন্ডল নামের এক ব্যাক্তি। এ ঘটনায় জামালপুর গ্রামের মোতালেব মন্ডলের ছেলে মিলন মন্ডল বাদী হয়ে কালুখালী থানায় লাবু জোয়াদ্দার ও কামাল হোসাইনের নাম উল্লেখ্য করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে বালি ব্যাবসাকে কেন্দ্র করে এ অভিযোগের সুত্রপাত।

লিখিত অভিযোগে উল্লেখ্য করা হয় শাওরাইল ইউনিয়নের জামালপুরে গড়াই নদীর চর থেকে বালি ব্যবসার উদ্দ্যেশে ১৫ আগষ্ট ২০২২ ইং তারিখে বালি উত্তোলন শুরু করে এবং এলাকার কতিপয় উঠতি বয়সের যুবকদের ব্যাবসায়িক পাটনার করার কথা বলে ২৩ লক্ষ টাকা নেন কামাল ও লাবু জোয়াদ্দার।

এ বিষয়ে চরের বৈধ কাগজ পত্র আছে মর্মে তারা ব্যবসায় যান পরবর্তীতে চর থেকে বালি উত্তোলনের বৈধতা না থাকায় কালুখালী উপজেলা প্রশাসন চর বন্ধ করে দেন। চরের বৈধ কাগজপত্র চাইলে কালাম ও লাবু নানা বাহানার কথা বলেন এবং তারা বৈধ কাগজ দেখাতে ব্যার্থ হয়।

আমরা সাধারণ যারা পাটনার ছিলাম তারা টাকা ফেরত চাইলে নানা ভাবে আমাদের তারা হুমকি দিতে থাকে। এলাকার বেশ কয়েকজন মিলে এ ২৩ লক্ষ টাকা দেন তারা হলেন- মকবুল মন্ডলের ছেলে নাসির মন্ডল, তোফাজ্জেল মন্ডলের ছেলে জহুরুল মন্ডল, কালুখালী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড আকামত আলী মন্ডলের ছেলে ফিরোজ মন্ডল, একই গ্রামের আব্দুল খালেক, আয়ুব আলী মন্ডল, আব্দুর রাজ্জাক, হিরু, মোলাম, মনিরুল মন্ডল, ওবায়দুর মন্ডল সকলেই শাওরাইল ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের বাসিন্দা।

এ বিষয়ে কালুখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ নাজমুল হাসান বলেন এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মিলন মন্ডল ও ক্ষতিগ্রস্থরা এর সঠিক বিচার দাবী করেনে। দির্ঘদিন ধরে জামালপুর চরে অবৈধভাবে বালি ব্যবসা করে আসছিল এ চক্র।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg