শিরোনাম
রাজবাড়ীতে মাদক মামলায় দুই মাদক ব্যবসায়ীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বালিয়াকান্দিতে প্রতিপক্ষের হামলায় আনারস প্রতীকের কর্মী আহত  চালককে হত্যা করে মোটরসাইকেল ছিনতাই : চারজনের যাবজ্জীবন খাবারের মেয়াদ নিয়ে বনফুলের এ কেমন প্রতারণা! বালিয়াকান্দিতে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ  চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে জেলেদের ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগ ফরিদপুরের তিনটি উপজেলায় চেয়ারম্যান হলেন যারা বিদেশে নেয়ার কথা বলে প্রতারণা ও টাকা আত্মসাতের অভিযোগ বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন এএসআইয়ের বিরুদ্ধে ভুয়া কাবিননামায় শারীরিক সম্পর্ক ও অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

রাশিয়া থেকে সৌদির দ্বিগুণ তেল আমদানি

নিউজ ডেস্ক | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ২৭১ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ১৬ জুলাই, ২০২২

0Shares

এপ্রিল থেকে জুন এই তিন মাসে রাশিয়া থেকে দ্বিগুণ জ্বালানি তেল আমদানি করেছে সৌদি আরব৷ গ্রীষ্মে বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলোতে জ্বালানি হিসেবে ব্যবহারের জন্য তারা এই তেল আমদানি করেছে বলে জানা গেছে৷

বিশ্বে অপরিশোধিত ক্রুড তেলের সবচেয়ে বড় রপ্তানিকারক দেশ সৌদি আরব৷ কিন্তু গত তিন মাসে দেশটি নিজেই রাশিয়ার কাছ থেকে আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে দুই গুণ বেশি তেল আমদানি করেছে৷ রেফিনিটিভ এইকন নামের একটি প্রতিষ্ঠানের ‘শিপ ট্র্যাকিং ডেটা’ বিশ্লেষণ করে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স৷ এতে দেখা যাচ্ছে চলতি বছরের এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত মস্কোর কাছ থেকে ছয় লাখ ৪৭ হাজার টন জ্বালানি তেল আমদানি করেছে রিয়াদ৷ যেখানে আগের বছরের একই সময়ে আমদানি হয়েছিল তিন লাখ ২০ হাজার৷ ২০২১ সালে সৌদি আরবে মোট তেল আমদানির পরিমাণ ছিল সাড়ে ১০ লাখ ৫০ হাজার টন৷

এখানেই শেষ নয়, সৌদি আরব বড় আকারের তেল আমদানি করেছে মিশরের কাছ থেকেও৷ আবার মিশর নিজেও রাশিয়ার কাছ থেকে রেকর্ড অঙ্কের তেল কিনেছে৷ জ্বালানি বিশ্লেষণ প্রতিষ্ঠান ভরটেক্সার তথ্য অনুযায়ী, জুনে মিশর থেকে দৈনিক এক লাখ ১০ হাজার ব্যারেল তেল আমদানি করেছে সৌদি আরব৷ এর আগে কখনও একমাসে দেশটির কাছ থেকে এত বেশি তেল আমদানি করেনি তারা৷ অন্যদিকে মিশর রাশিয়ার কাছ থেকে একই মাসে রেকর্ড দৈনিক ৭০ হাজার ব্যারেল তেল কিনেছে৷

কেন তেল কিনছে সৌদি আরব?

বিশ্বের জ্বালানি তেলের বাজারে সৌদি আরব সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়া সত্ত্বেও গত কয়েক বছর ধরে রাশিয়া থেকে দেশটি তেল আমদানি করে৷ মূলতঃ বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলোর জ্বালানি হিসেবে ব্যবহারের জন্য পরিশোধিত তেল কেনে তারা৷ এতে নিজেদের তেল পরিশোধন করতে হয় না বরং নিজেদের উৎপাদিত অপরিশোধিত ক্রুড বিশ্ব বাজারে অপেক্ষাকৃত বেশি দামে বিক্রি করে৷

চলতি বছর গ্রীষ্মে তীব্র গরমে সৌদি আরবে বিদ্যুতের চাহিদা ব্যাপক বেড়ে যায়৷ বাড়তি বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য তাই জ্বালানি তেলের আমদানিও বেড়েছে বলে জানিয়েছে ভারটেক্স৷ প্রতিষ্ঠানটির হিসাবে জুনে দৈনিক তিন লাখ ২০ হাজার ব্যারেল তেল আমদানি করেছে সৌদি যা ২০২০ সালের নভেম্বরের পর সর্বোচ্চ৷

বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে রাশিয়া থেকে সৌদি আরবের তেল আমদানির পরিসংখ্যান নিয়ে দুই দেশের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় রয়টার্সের কাছে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে৷

জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধিতে রাশিয়ার পোয়াবারো

ইউক্রেন যুদ্ধ ও রাশিয়ার উপর পশ্চিমা দেশগুলোর নিষেধাজ্ঞায় রাশিয়ার তেল রপ্তানিতে তেমন প্রভাব পড়েনি৷ নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও সৌদি আরবের মতো বিভিন্ন দেশ বরং তাদের থেকে আমদানি বাড়িয়েছে৷ এই তালিকায় আছে চীন, ভারতসহ আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কিছু দেশও৷

বিশ্ববাজারে তেল, গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধিও রাশিয়ার জন্য সুফল বয়ে এনেছে৷ ব্লুমবার্গের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে অর্থাৎ এপ্রিল থেকে জুনে দেশটির চলতি হিসাবে উদ্বৃত্ত রেকর্ড সাত হাজার কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে৷ জ্বালানি ও পণ্য রপ্তানি থেকে আয় বৃদ্ধি সেই সঙ্গে আমদানি হ্রাস এই ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা রেখেছে৷

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের তথ্য অনুযায়ী, সব মিলিয়ে বছরের প্রথমার্ধে রাশিয়ার চলতি হিসাবে উদ্বৃত্ত ছিল ১৩ হাজার ৮৫০ কোটি ডলার, যা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে তিন গুণ বেশি৷

সূত্রঃ  dw.com

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg