শিরোনাম
গোয়ালন্দে কৃষকদের বাধা উপেক্ষা করে প্রভাবশালী মহল মরাপদ্মায় ড্রেজার দিয়ে অবাধে মাটি উত্তোলন করছে দৌলতদিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক বহিস্কার গোয়ালন্দে ছাত্রলীগ নেতাকে মারধরের অভিযোগে উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আটক- গোয়ালন্দে ৭০০ গ্রাম গাঁজাসহ দুই জন আটক গোয়ালন্দ প্রবাসী ফোরামের উদ্যোগে অসচ্ছল মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান রাজবাড়ীতে শেখ হাসিনার নির্দেশে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে সম্মানি বিতরণ অবৈধ ড্রেজার ব্যবসায়ীকে জরিমানা, ৭টি ড্রেজার জব্দ গোয়ালন্দে অসহায় মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ এমপি কন্যা চৈতীর উদ্যোগে জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মাধ্যমে শেষ হলো রাজবাড়ী সার্কেল আয়োজিত ইসলামিক কুইজ প্রতিযোগিতা ২০২১ করোনা ভাইরাস থেকে পরিত্রাণের জন্য রাজবাড়ী সার্কেলের বিশেষ দোয়া মাহফিল

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে কর্মমূখী মানুষের ভীড়, যানবাহনের দীর্ঘ সিরিয়াল

নিউজ ডেস্ক | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ১৫৯ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট, ২০২০

0Shares

কামাল হোসেন।।
ঈদ শেষে ঢাকাসহ তার আশপাশের বিভিন্ন জেলায় ফিরছে বিভিন্ন কর্মমুখী মানুষ এতে দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে কর্মমূখী মানুষের ভীড় এবং যানবাহনের দীর্ঘ সিরিয়াল।

পণ্য বোঝাই যানবাহন চলাচল শুরু হওয়ার পর থেকেই ঘাট এলাকায় যানবাহনের চাপ সৃষ্টি হয়েছে। পাশাপাশি রয়েছে শতশত ব্যক্তিগত গাড়ী। তবে ব্যক্তিগত গাড়ী, যাত্রীবাহী বাস ও অন্যান্য জরুরী যানবাহন গুলোকে অগ্রাধিকার দিয়ে নদী পারাপার করা হচ্ছে।

সরেজমিন দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় দেখা যায়, দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে কর্মমূখী মানুষের উপচে পড়া ভীড়। করোনা সংক্রমনের ঝুঁকিতে মানুষের মধ্যে কারো কারো মুখে মাস্ক দেখা গেলেও কোন সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কোন সুযোগ ছিল না। এতে শঙ্কা রয়েছে নতুন করে ব্যাপক আকারে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার।

বিআইডব্লিউটিসি’র দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক মো. আবু আব্দুল্লাহ রনি জানান, ঈদের ছুটি শেষে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে কর্মমূখী যাত্রীদের চাপ বৃদ্ধি পেয়েছে। যাত্রী ও যানবাহন পারাপারের জন্য এ রুটে ছোট-বড় ১৬টি ফেরি চলাচল করছে। তবে তীব্র স্রোতের কারণে ফেরি চলাচল চরমভাবে ব্যাহত হবার কারণে ঘাট এলাকায় যানবাহন আটকা পড়ার ঘটনা ঘটছে। তবে যাত্রীদের দুর্ভোগ কমাতে আমরা যাত্রীবাহী যানবাহনগুলোকে অগ্রাধিকার দিয়ে পার করার চেষ্টা করছি।

রাজবাড়ী ট্রাফিক পুলিশের ইন্সেপেক্টর তারক চন্দ্র পাল বলেন, ঈদুল আযহা শেষে ঢাকামূখী যাত্রীবাহীবাস ও ব্যাক্তিগত গাড়ীর সংখ্যা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। পচনশীল পণ্যবাহী ট্রাক, যাত্রীবাহীবাস গুলোকে অগ্রাধীকার ভিত্তিতে পারাপার হচ্ছে এবং ব্যাক্তি গত গাড়িগুলোকে পদ্মার মোড় হয়ে বিকল্প রাস্তা দিয়ে অতিসহজেই ফেরিতে উঠছে। ফেরি ঘাট যানযট মুক্ত রাখতে জেলা ট্রাফিক পুলিশ সর্বদা সদয় সচেষ্ট রয়েছে।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg