ঘন কুয়াশায় ১০ঘন্টা বন্ধ থাকার পর ফেরি চলাচল শুরু, ৬ কিলোমিটার জুড়ে যানবাহনের দীর্ঘ সারি –

ষ্টাফ রিপোর্টার | রাজবাড়ী টেলিগ্রাফ / ৯৭ বার পড়া হয়েছে
সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২১

0Shares

স্টাফ রিপোর্টারঃ

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া নৌরুটে ঘন কুয়াশার কারণে ১০ ঘণ্টা সাময়িক বন্ধ থাকার পর পুনরায় ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। বুধবার দিবাগত মধ্যরাত ১২টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা পর্যন্ত ১০ ঘন্টা ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। এর জন্য দৌলতদিয়া প্রান্তে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের মোস্তফা মেটাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিঃ পর্যন্ত প্রায় ৬ কিলোমিটার জুড়ে যানবাহনের লম্বা লাইন তৈরী হয়। এতে দুর্ভোগে পড়েন আটকে থাকা শত শত যানবাহনের যাত্রী এবং চালকেরা।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয় সূত্র জানায়, বুধবার সন্ধ্যার পর থেকে নদী অববাহিকায় কুয়াশা পড়তে থাকে। রাত সাড়ে ১১টার পরে অতি মাত্রায় কুয়াশার ঘনত্ব বাড়ায় নৌদূর্ঘটনা এড়াতে রাত ১২ টা থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ করা হয়। কুয়াশার ঘনত্ব কমে এলে ১০ ঘন্টা বন্ধ থাকার পর সকাল ১০টায় পুনরায় এই নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) সকালে দৌলতদিয়া প্রান্তে দেখা যায়, ফেরি ঘাট এলাকায় ৫শতাধিক ঢাকামুখী গাড়ি নদী পাড়ি দিতে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোয়ালন্দ বাজার পর্যন্ত প্রায় ৬ কিলোমিটার লম্বা লাইনে অপেক্ষা করছে। শীত ও কুয়াশায় আটকে থাকা যানবাহনের যাত্রীরা গাড়িতেই বসে আছেন। অনেকে গাড়ি থেকে নেমে বাইরে চায়ের ষ্টলে ভিড় করছেন। অনেকে গাড়ি থেকে নেমে হেটে ফেরিঘাটের দিকে এগোচ্ছেন। ফেরি ঘাটের সংযোগ সড়কসহ পন্টুনে কিছু গাড়ির সাথে বেশকিছু যাত্রী কখন ফেরি চালু হবে সে জন্য অপেক্ষা করছেন। অনেকেই আবার ঝুকি নিয়ে ইঞ্জিন চালিত ট্রলারে নদী পারি দিচ্ছেন।

কুমারখালি থেকে বুধবার রাতে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন আরিফুল ইসলাম। বুধবার মধ্যরাতে ফেরি ঘাট থেকে প্রায় চার কিলোমিটার পিছনে আটকা পড়ে তার গাড়ি । তার গাড়িটি দৌলতদিয়া ক্যানাল ঘাট এলাকায় পৌছানোর পর খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন ফেরি বন্ধ রয়েছে। এরপর থেকে তিনিসহ অন্যসব যাত্রীরা বাসেই বসে আছেন। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টার মধ্যে ঢাকা পৌছাতে না পারলে অনেক বড় সমস্যার মধ্যে পরতে হবে তাকে । কিন্তু ফেরি বন্ধের কারনে এখনও ঘাট পারি দিতেই পারলাম না। যেতে যেতে হয়তো আজ দুপুর পার হয়ে যাবে।

শ্যামনগর থেকে রাত ৭ টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে রাত ১২ টার দিকে গোয়ালন্দ পদ্মার মোড় এলাকায় এসে সিরিয়ালে আটকা পরেন ঠিকানা পরিবহন।কিছুদূর এগোতেই ফেরি বন্ধ হয়ে গেলে সারারাত সিরিয়ালেই থাকতে হয় তাদের। সুপারভাইজার রাসেল শেখ বলেন, আমাদের ভোর বেলা গাজীপুর পৌছানোর কথা থাকলেও ফেরিঘাট থেকে এখনও ৩ কিলোমিটার দূরে আছি। ফেরি পেতে এখনও ৪-৫ ঘন্টা লাগবে বলে তিনি জানান।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক শিহাব উদ্দিন জানান, কুয়াশার কারণে দৌলতদিয়া প্রান্তে ৭টি ফেরি ও পাটুরিয়ায় ৯টি ফেরি নোঙর করে ছিল। কুয়াশায় ফেরি বন্ধের ১০ ঘন্টা পর সকাল ১০ টার দিকে দৌলতদিয়া থেকে ফেরি ছেড়ে যায়। ফেরি বন্ধ ও ফেরি স্বল্পতার কারনে যানবাহন পারাপার ব্যাহত হওয়ায় দৌলতদিয়া প্রান্তে ৭ শতাধিক বিভিন্ন ধরনের যানবাহন আটকে রয়েছে বলে তিনি জানান।

Facebook Comments


এ জাতীয় আরো খবর
NayaTest.jpg